Headlines
Loading...
Worlds and Indian railway gk in bengali table | ভারতীয় রেল জিকে টেবিল

Worlds and Indian railway gk in bengali table | ভারতীয় রেল জিকে টেবিল

Indian railway gk chart in bengali | ইন্ডিয়ান রেলওয়ে জিকে

বিষয়বিবরণ
প্রথম প্রস্তাবনা১৮৩২ সালে মাদ্রাজে।
ভারতের প্রথম রেলযাত্রা১৬ এপ্রিল, ১৮৫৩ সালে বোম্বে থেকে ৪০০ জন যাত্রী নিয়ে (৩৪ কিমি) তৎকালীন ভারতের গভর্নর জেনারেল লর্ড ডালহৌসি যাত্রা করেন। ইঞ্জিনগুলির নাম ছিল— সাহিব, সিন্ধ, সুলতান।
ভারতীয় রেলওয়ে জাতীয়করণ হয়১৯৫১ সালে।
ভারতীয় রেল যোগাযোগ ব্যবস্থাভারতীয় রেল এশিয়ার মধ্যে বৃহত্তম এবং পৃথিবীর মধ্যে চতুর্থ (প্রথম তিনটি দেশ হল যথাক্রমে— আমেরিকা, চিন ও রাশিয়া)
ভারতীয় রেলওয়ে যোগাযোগ ব্যবস্থার বৈদ্যুতিকরণভারতীয় রেল বৈদ্যুতিকরণে পৃথিবীর মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে (প্রথম রাশিয়া)
ট্র্যাকগেজব্রডগেজ (১৬৭৬ মিমি), মিটারগেজ (১০০০ মিমি), ন্যারোগেজ (৭৬২ ও ৬১০ মিমি)।
রেলপথের মোট দৈর্ঘ্য প্রায় ৬৫,০০০ কিমি।
হেড কোয়ার্টারনিউ দিল্লি।
মোট স্টেশনপ্রায় ৭,৮০০ টি।
ভারতবর্ষে দৈনিক ট্রেনে যাতায়াত করেনপ্রায় ২.৩ কোটি যাত্রী।
ভারতবর্ষে প্রথম টাইম টেবিলের নক্সা তৈরি করেনজর্জ ব্র্যাড শ।
ভারতবর্ষের সর্ববৃহৎ রেল জংশন মথুরা।
প্রথম রেলওয়ে ব্রিজ১৮৫৪ সালে মুম্বাই-থানে রুটে 'ধাপুরিয়া ভায়াডাক্ট' ব্রিজ।
প্রথম রেলওয়ে টানেলমুম্বাইয়ের পার্সিক টানেল
প্রথম পাতাল (মেট্রো) রেল২৪ অক্টোবর, ১৯৮৪ সালে কলকাতা মেট্রো।
দ্রুতগামী ট্রেননিউ দিল্লি থেকে আগ্রা গতিমান এক্সপ্রেস (১৬০ কিমি/ঘন্টা)।
প্রথম বৈদ্যুতিক ট্রেন৩ ফেব্রুয়ারি ১৯২৫ সালে ভিক্টোরিয়া টার্মিনাস (বোম্বে) থেকে কুরলা (৯.৫ মাইল)
দীর্ঘতম নামের স্টেশনভেঙ্কটনরসীমারাজুভারিপেটা (আরাক্কোনামরেনিগুন্টা সেকশন), চেন্নাইয়ের নিকট।
ক্ষুদ্রতম নামের স্টেশনইব (Ib) (ওড়িশা) এবং ওডি (Od) (গুজরাট)
উচ্চতম রেলস্টেশন ঘুম, উচ্চতা ৭,৪০৭ ফুট (পশ্চিমবঙ্গ)
পুরাতন ডাইনিং কারবোম্বে-পুনে ডেকান কুইন।
সর্বাধিক দূরত্ব অতিক্রান্ত ট্রেনবিবেক এক্সপ্রেস (৪,২৮৬ কিমি), সাপ্তাহিক (অসমের ডিব্ৰুগড় থেকে তামিলনাড়ুর কন্যাকুমারী )
সর্বনিম্ন দূরত্ব অতিক্রান্ত ট্রেন মহারাষ্ট্রের নাগপুর থেকে আজনি (৩ কিমি)
রেলওয়ে বোর্ড গঠিত হয়১৯০৫ সালে
সর্বাধিক দূরত্ব অতিক্রান্ত দৈনিক ট্রেনকেরালা এক্সপ্রেস (ত্রিবান্দ্রম থেকে নতুন দিল্লি) (৩, ০৫৪ কিমি)
দীর্ঘতম রেলওয়ে প্ল্যাটফর্মউত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর (১,৩৬৬.৩৩ মিটার/৪,৪৪৮ ফুট)
উচ্চতম রেল সেতুজম্মু ও কাশ্মীরের গম্ভীরখাদ সেতু (জম্মু তাওয়াই এবং উধমপুরের মধ্যে) ৭৭ মিঃ।
দীর্ঘতম রেলওয়ে ব্রিজইন্দাপল্লি রেলওয়ে স্টেশন থেকে আইসিটিটি, ৪ কিমি।
দীর্ঘতম টানেলকঙ্কন রেলওয়ের করবুদে টানেল (৬.৫ কিমি)
পুরাতন সংরক্ষিত রেলইঞ্জিন ফেয়ারি কুইন (রানী) (১৮৫৫ খ্রিঃ)
তিনটি রেলগেজ বিশিষ্ট স্টেশনপশ্চিমবঙ্গের নিউ জলপাইগুড়ি।
মোট রেলকর্মীর সংখ্যাপ্রায় ১৬ লক্ষ কর্মী (চাকরিরত কর্মীর সংখ্যা পৃথিবীতে চতুর্থ)
স্বাধীন ভারতের প্রথম পূর্ণ রেলমন্ত্রীডঃ জন মাথাই (স্বাধীনতার পূর্বে ছিলেন আসফ আলি
পশ্চিমবঙ্গ থেকে প্রথম রেলমন্ত্রীআবু বরকত আলি গনিখান চৌধুরী (২ সেপ্টেম্বর ১৯৮২ সালে)
ভারতের প্রথম মহিলা রেলমন্ত্রীমমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, পশ্চিমবঙ্গ (১৩ অক্টোবর, ১৯৯৯ সালে)
ভারতের প্রথম মনোরেলমুম্বাই (২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৪ সালে)
ভারতীয় রেলের ম্যাসকট১৬ এপ্রিল, ২০০২ সালে 'ভলু দ্য গার্ড' (১৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে)।
ভারতীয় রেলের প্রথম টাইমটেবিল ব্যবস্থা চালু হয়।১৮৫৩ সালে সেন্ট্রাল ইন্ডিয়ায়।
প্রথম মহিলা স্পেশাল ট্রেনপশ্চিম রেলে চার্চগেট ও ভিরার মধ্যে (পৃথিবীতে সপ্তম)
একই শহরে রেলের তিনটি পৃথক জোনের সদর দপ্তরকলকাতা (পূর্ব রেল, দক্ষিণ-পূর্ব রেল ও কলকাতা মেট্রো রেল)।
ভারতের প্রথম ব্রডগেজ সুপারফাস্ট ট্রেনরাজধানী এক্সপ্রেস। নতুন দিল্লি থেকে হাওড়া। ১৯৬৯/ সালের ১মার্চ এই ট্রেন চালু হয়।
ভারতের প্রথম মিটারগেজ সুপারফাস্ট ট্রেনপিঙ্ক সিটি এক্সপ্রেস। নতুন দিল্লি থেকে জয়পুর। ১৯৮১/ সালের ১৭ অক্টোবর এই ট্রেন চালু হয়।
ভারতবর্ষের বৃহত্তম ট্রেনপ্রয়াগরাজ এক্সপ্রেস। এই ট্রেনটি ২৬ কোচ বিশিষ্ট।নতুন দিল্লি থেকে এলাহাবাদের মধ্যে এটি যাতায়াত করে।
সর্বোচ্চ ব্রডগেজ রেলওয়ে স্টেশন।অন্ধ্রপ্রদেশের শিমিলিগুড়া (সমুদ্রতল থেকে ১৯৬মিটার উচ্চতায়)।
প্রথম ওয়াই-ফাই প্রযুক্তি সম্পন্ন রেলস্টেশন নিউ দিল্লি (২৯ জুলাই, ২০১৩ সালে)
রেলের বৃহত্তম জোননর্দান রেলওয়ে জোন— নিউদিল্লি।
রেলের ক্ষুদ্রতম জোনউত্তর-পূর্ব ফ্রন্টিয়ার রেলওয়ে হেডকোয়ার্টার গুয়াহাটি
দীর্ঘতম রেলওয়ে কমপ্লেক্সহাওড়া স্টেশন (২৩টি প্ল্যাটফর্ম ও ২৬টি ট্র্যাক)
প্রথম ডবলডেকার ট্রেন ফ্লাইং কুইন (২০০৫ সালে চালু হয়)।
ইউনেস্কো ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটছত্রপতি শিবাজী টার্মিনাস এবং দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে|
রাজ্যসীমানায় স্টেশননভপুর (মহারাষ্ট্র এবং গুজরাট), ভবানি মান্ডি (মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থান)
সবচেয়ে উত্তরের রেলস্টেশনজম্মু ও কাশ্মীরের বারামুলা স্টেশন।
সবচেয়ে পশ্চিমে অবস্থিত রেলস্টেশন গুজরাটের নালিয়া।
সবচেয়ে দক্ষিণে অবস্থিত রেলস্টেশনতামিলনাড়ুর কন্যাকুমারী।
সবচেয়ে পূর্বে অবস্থিত রেলস্টেশনআসামের লিডো (তিনসুকিয়া)
দুটি স্টেশনের মধ্যে সবচেয়ে কম দূরত্বসাফিলগুড়া এবং দয়ানন্দ নগর স্টেশন, সেকেন্দ্রাবাদ (১৭০ মিটার দূরত্ব)
সর্বাধিক রাজ্যের মধ্যে অতিক্রান্ত ট্রেননবযুগ এক্সপ্রেস (ম্যাঙ্গালোর থেকে জম্মু তাওয়াই) (১৩টি রাজ্য)
সবচেয়ে বেশি হল্ট আছেহাওড়া অমৃতসর এক্সপ্রেস (১১৫ হল্ট)
রেলের মাধ্যমে বহন হয়প্রায় ১ কোটি ১০ লক্ষ যাত্রী এবং ১০ লক্ষ টন মালপত্র
দৈনিক ট্রেন চলাচল করে।প্রায় ১০,০০০টি।
সর্বাধিক জোন অতিক্রান্ত ট্রেনরাপ্তীসাগর সুপারফাস্ট এক্সপ্রেস (৮টি জোন) (এর্নাকুলাম থেকে বারাউনি)
ভারতে প্রথম ডবল ডেকার AC ট্রেন চালু হয়নভেম্বর ২০১০
ভারতের প্রথম লাক্সারী ট্রেন'The Palace of Whiles' চালু হয় ১৯৬২ সালে।
ইউনিগেজ প্রজেক্টএই প্রজেক্ট মারফৎ সমস্ত রেললাইনকে ব্রডগেজ রেললাইনে পরিবর্তিত করা হবে।
RVNL এর পুরো কথাRail Vikas Nigam Limited.
ভারতে বর্তমানে মোট 'রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড১৮টি।
IRITM এর পুরো অর্থIndian Railways Institute of Transport Management
পশ্চিমবঙ্গের রেলের প্রথম মহিলা (EMU) ট্রেন চালকপ্রীতি কুমারী।
চারদিকে রেললাইন বেষ্টিত প্ল্যাটফর্ম হল।আইল্যান্ড প্লাটফর্ম।
ভারতে রেললাইন স্থাপন ও চালু হয়লর্ড ডালহৌসির আমলে।
এমন স্টেশন যেখানে গিয়ে কোনো রেললাইন শেষ হয়ে যায় তাকে বলেপ্রান্তিক স্টেশন / টার্মিনাল স্টেশন
রেলওয়ে স্টাফ কলেজ অবস্থিতগুজরাটের ভাদোদরা।
লাইফলাইন এক্সপ্রেস হলচলমান রেল হাসপাতাল (১৬ জুলাই ১৯৯১ চালু হয়)।
ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যে যে ট্রেন চলাচল করেসমঝোতা এক্সপ্রেস ও থর এক্সপ্রেস।
ভারতবর্ষে প্রথম মনোরেল চালু হয়সরহিন্দ থেকে আলমপুর এবং ভবানীমান্ডি থেকে পাতিয়ালা পর্যন্ত।
ভারতবর্ষে প্রথম কম্পিউটার চালিত রিজার্ভভেশন ব্যবস্থা চালু হয়২০০২ সালে নতুন দিল্লিতে
ভারতীয় রেলওয়ে বোর্ডের এক্স-অফিসিও পায় চেয়ারম্যানরেল মন্ত্রকের প্রধান সচিব।
গীতাঞ্জলি এক্সপ্রেস চলেহাওড়া-মুম্বাই এবং অগাস্টক্রান্তি এক্সপ্রেস চলে দিল্লি-মুম্বাই।
প্রথম রেল কর্তৃপক্ষ কম্পিউটার পরিচালিত আসন সংরক্ষণ ব্যবস্থাদিল্লিতে চালু হয়।
ভারতীয় রেলের গবেষণা ও উন্নয়ন শাখালক্ষ্ণৌতে অবস্থিত।
রেলওয়ে ইঞ্জিন আবিষ্কার করেন জর্জ স্টিফেনসন।
কলকাতার মেট্রো স্টেশনের নামটালিগঞ্জ স্টেশনটির নাম বদলে। 'মহানায়ক উত্তমকুমার স্টেশন'
প্রথম ভূগর্ভস্থ রেলপথ চালু হয়লন্ডনে।
বাংলায় প্রথম ট্রেন চলাচল করে১৫ আগস্ট, ১৮৫৪, হাওড়া-হুগলি।
রেল সর্বাধিক আয় করেমাল পরিবহণে (যাত্রী পরিবহনে নয়)।
অ্যাকওয়ার্থ কমিটিভারতীয় রেলপথের অগ্রগতির পর্যালোচনা ও রেলপথের প্রসার ও উন্নয়নের জন্য যে কমিটি গঠন করা হয়েছিল।
ভারতে প্রথম মহিলা স্পেশাল ট্রেনপশ্চিম রেলওয়ে জোনে চালু হয়।
রবীন্দ্রনাথের জীবন ও কর্মকাণ্ড নিয়ে ভারতীয় রেলে অন্তর্ভুক্ত নতুন ট্রেনসংস্কৃতি এক্সপ্রেস
বিশ্বের প্রাচিনতম স্টিম ইঞ্জিনের নামফেয়ারি কুইন (Fairy Queen)।
মেট্রোরেলে বায়ু শোধনের জন্য ব্যবহৃত হয়হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড।
শতাব্দী এক্সপ্রেস ট্রেনটির নামকরণ করা হয়ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের শতবর্ষের নামে।
ভারতের দীর্ঘতম রেলওয়ে প্লাটফর্মগোরক্ষপুর (উত্তরপ্রদেশ), ১৩০০ মি (দ্বিতীয়— কেরালার কোল্লাম ১১৮০.৫ মিঃ, তৃতীয়— পশ্চিমবঙ্গের খড়্গপুর ১০৭২মিঃ)
সর্বাধিক টানেলযুক্ত রেলওয়ে ডিভিসননর্দান রেলওয়ের কালকা-সিমলা ডিভিসন। ১০১টি টানেল রয়েছে।
লোকোমোটিভের প্রতিষ্ঠাতাজর্জ স্টিফেনসন।
ভারতবর্ষে রেলওয়ে সপ্তাহ উদযাপিত হয়১০-১৬ এপ্রিল।
প্রথম ভারতীয় পর্যটক রেলপ্যালেস অন হুইলস্। ১৯৮২ সালে দিল্লি থেকেজয়পুর পর্যন্ত।
দ্রুততম ট্রেন (শতাব্দী এক্সপ্রেস) চালু হয়১৯৮৮ সালে।
রেলের প্রথম মিউজিয়াম স্থাপিত হয়দিল্লিতে।
আগস্ট ক্রান্তি এক্সপ্রেস চলাচল করে দিল্লি-মুম্বাই।
ভারতের প্রথম রেল কোম্পানির নামগ্রেট ইন্ডিয়ান পেনিনসুলার রেলওয়ে কোম্পানি (GIPR), (প্রতিষ্ঠিত হয় আগস্ট, ১৮৪৯)।
Indian Railway Institute of Civil Engineering Institute অবস্থিত পুনেতে।
পূর্ব রেলওয়ে গঠিতচারটি ডিভিশন নিয়ে— হাওড়া, মালদা, শিয়ালদহ ও আসানসোল।
NMR এর পুরো কথা Nilgiri Mountain Railway.
কলকাতায় প্রথম মেট্রোরেল চলেছিল।১৯৮৪ সালে, তখন ট্রেনে কোচ বা বগি ছিল ৪টি :
ভারতের 'রেলওয়ে বাজেট' সাধারণ বাজেটের থেকে আলাদা করা হয়১৯২৪-২৫ সালে।
পূর্ব ভারতের ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সংযোগরক্ষাকারী একমাত্র আন্তর্জাতিক ট্রেনটি ছাড়ে কলকাতা স্টেশন (মৈত্রী এক্সপ্রেস) থেকে।
প্রথম মন্ত্রী ভারতের রেল বাজেট পেশ করেনজন মাথাই।
পৃথিবীতে প্রথম পাতালরেল চালু হয়১৮৬৩ (১০ জানুয়ারি, লন্ডনে)।
দিল্লিতে মেট্রোরেল ব্যবস্থা চালু হয় ২০০২ সালে।
ভারতের সবথেকে পশ্চিম প্রান্তের রেলস্টেশনপশ্চিমপ্রান্তের রেলস্টেশন— উখা।
রাজস্থানের ঐতিহাসিক স্থান সমূহ দর্শনের জন্য সর্বপ্রথম রেল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বিলাস বহুল ট্রেনটির নামপ্যালেস অন হুইলস্
ভাস্কো-দা-গামা নামক রেলস্টেশনটি রয়েছেগোয়ায়
যে রাজ্যে কোনো রেলপথ নেইমেঘালয়ে
ভারতের বৃহত্তম সরকারি প্রতিষ্ঠানভারতীয় রেল।
বিভিন্ন রেলজোনের প্রধানজেনারেল ম্যানেজার (G.M)।
যে শহরে ভারতীয় রেলের দুটি পৃথক জোন অবস্থিতকলকাতা
পৃথিবীর সবচেয়ে বড় রেলওয়ে পথট্রান্স সাইবেরিয়ান রেলওয়ে স্টেশন, রাশিয়া।
ভারতের সবচেয়ে শক্তিশালী রেল ইঞ্জিন'ভীম'
ভারতীয় রেলের গাইড বুক এর নাম ব্রাডস।
বিশ্বের প্রথম যাত্রীবাহী ট্রেন যে শহরের মধ্যে চালু হয়েছিললিভারপুল ও ম্যাঞ্চেস্টার।
ভারতের রেলমন্ত্রী পীযূশ গোয়েল ভারতীয় রেলের প্রথম সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন২০১৭ সালের ২৭ অক্টোবর। ৫ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন এই সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি চালু করা হয়েছে নতুন দিল্লির হজরত নিজামুদ্দিন রেলস্টেশনের সাথে।
ভারতীয় রেলের সমস্ত কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ দান এবং কর্মক্ষেত্রে দক্ষতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে যে প্রকল্প চালু করা হয়েছেসক্ষম প্রকল্প।
ভারতীয় রেল এশিয়ার বৃহত্তম 'সলিড স্টেট ইন্টারলকিং সিস্টেম চালু করলপশ্চিমবঙ্গের খড়্গপুরে।
ভারতীয় রেল ভারতের প্রথম 'ন্যাশনাল রেল অ্যান্ড ট্রান্সপোর্ট ইউনিভার্সিটি গড়ে তুলেছে গুজরাটের বরোদায়।
ভারতীয় রেল দ্বারা প্রথম সৌরশক্তি চালিত ট্রেন২০১৭ সালের ১৪ জুলাই চালু হয়েছে। দিল্লির সরাই রোহিল্লা থেকে হরিয়ানার ফারুক নগর পর্যন্ত এই ট্রেন চলাচল করে। ১৬০০ হর্ষ পাওয়ারের এই ট্রেনটির সমস্ত কোচগুলি সৌরশক্তি চালিত।
ভারতের প্রথম বেসরকারি রেলস্টেশন হিসাবে পরিচিতমধ্যপ্রদেশের ভূপালের হাবিবগঞ্জ।
ভারতের প্রথম ব্রডগেজ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত লোকাল ট্রেন২০১৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর মুম্বাইয়ে চালু হয়েছে।
সম্প্রতি ভারতীয় রেল যে সংস্থার সঙ্গে প্রথম বার 'ইপিসি চুক্তি স্বাক্ষর করল লার্সেন এন্ড ট্রুবো।
ভারতের সর্বপ্রথম সম্পূর্ণভাবে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরী ট্রেন২০১৭ সালের ১৯ মার্চ পশ্চিম রেলওয়ের অন্তর্গত। মহারাষ্ট্রের দাদর থেকে তৈরী হওয়া 'মেধা' নামক ট্রেন |
ভারতীয় রেলে বিনামূল্যে 'ওয়াই-ফাই' পরিষেবা চালু২০১৯ সালের ৮৫০০টি রেলওয়ে স্টেশনে বিনামূল্যে ওয়াই ফাই পরিষেবা চালু করেছে।
ভারতীয় রেলের 'রেল সারথি' মোবাইল অ্যাপ্ চালুটিকিট বুক করা, অনুসন্ধান, রেলে যাত্রাকালীন খাদ্যের সরবরাহ, পরিচ্ছন্নতা রাখার জন্য এই মোবাইল অ্যাপটি চালু করেছে।

0 Comments: