Headlines
Loading...
Geography gk in bengali | ভূগোল জিকে প্রশ্ন উত্তর 3

Geography gk in bengali | ভূগোল জিকে প্রশ্ন উত্তর 3

ভূগোল জিকে প্রশ্ন উত্তর

ভূগোলের সমস্ত বাছাই করা প্রশ্নোত্তর যেগুলি বিভিন্ন প্রতিযগিতামূলক পরীক্ষার ক্ষেত্রে অত্যন্ত সহযোগী। বিভিন্ন পরীক্ষা যেমন WBCS, SSC, WBP, ICDS, RAIL,RRB GROUP D and others competitive exams , Geography quiz question answers Part 3.

প্রঃ ব্যাসল্টের আপেক্ষিক গুরুত্ব কত?

উঃ ব্যাসন্টের আপেক্ষিক গুরুত্ব 2.81

প্রঃ ব্যাসন্টের উপস্থিত দুটি খনিজের নাম লেখ

উঃ ব্যাসন্টের উপস্থিত দুটি খনিজ হল পাইরক্সিন অলিভিন

প্রঃ ব্যাসল্ট শিলায় গঠিত দুটি ভূমিরূপের নাম লেখ

উঃ ব্যাসল্ট শিলায় গঠিত দুটি ভূমিরূপ হল ধাপজাতীয় ভূমিরূপও চ্যাপ্টা টেবিলাকৃতির ভূমিরূপ

প্রঃ ষড়ভূজাকৃতি স্তম্ভ কোথায় কোথায় দেখা যায় ?

উঃ কর্ণাটকের উদুপি আয়ারল্যান্ডের জয়েন্টে কাজওয়েতে ষড়ভূজাকৃতি স্তম্ভ দেখা যায়

প্রঃ ধাপজাতীয় ভূমিরূপ ভারতের কোথায় দেখতে পাওয়া যায়?

উঃ ধাপজাতীয় ভূমিরূপ ভারতের ডেকান ট্যাপ অঞ্চলে দেখা যায়

প্রঃ গ্রানাইট দানার বর্ণ কীরূপ?

উঃ প্রাণাইটের দানার বর্ণ লাল, গোলাপী সাদা রঙের হয়

প্রঃ প্রাণাইটের গঠন বা আকৃতি কেমন?

উঃ গ্রাণাইট স্ফটিকাকার হয়ে থাকে এবং এই শিলায় গঠিত পাহাড়ের চূড়া গোলাকার হয়

প্রঃ গ্রাণাটাইজেশন কী?

উঃ গ্রানাইট শিলা সৃষ্টির পদ্ধতিই হল প্রাণাটাইজেশন

প্রঃ গ্রাণাইট শিলা কীভাবে সৃষ্টি হয়?

উঃ উত্তপ্ত তরল ম্যাগমা ত্বকের ফাটলের মধ্যে জমে গিয়ে প্রাণাইট শিলার সৃষ্টি হয়

প্রঃ প্রাণাটাইজেনের একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ গ্রাণাটাইজেনে সৃষ্ট শিলা শক্ত, ভারী অপ্রবেশ্য হয়

প্রঃ ক্রিস্টালাইন শিলা কাকে বলে?

উঃ সে সকল আগ্নেয় শিলা সম্পূর্ণ কেলাস দিয়ে তৈরী হয়, তাদের বলা হয় ক্রিস্টালাইন শিলা

প্রঃ ক্রিস্টালাইন শিলার একটি উদাহরণ দাও

উঃ ক্রিস্টালাইন শিলার একটি উদাহরণ হল বায়োটাইট

প্রঃ হলোহায়ালাইন কাকে বলে?

উঃ যে সকল আগ্নেয় শিলা সম্পূর্ণ কাঁচ জাতীয় পদার্থে তৈরী হয়, তাদের হলোহায়ালাইন বলে

প্রঃ হলোহায়ালাইনের একটি উদাহরণ দাও

উঃ অবাসডিয়ান শিলা হলোহায়ালাইনের একটি উদাহরণ

প্রঃ হেমিক্রিস্টালাইন কাকে বলে?

উঃ যখন কোনো আগ্নেয় শিলা অংশত কেলাস অংশত কাঁচ জাতীয় পদার্থ দিয়ে গঠিত হয় তখন তাদের হেমিক্রস্টালাইন বলে

প্রঃ হেমিক্রিস্টালাইনের একটি উদাহরণ দাও

উঃ হোলাইট শিলা হেমিক্রিস্টালাইনের একটি উদাহরণ

প্রঃ ফেনোরোক্রিস্টালাইন কাকে বলে?

উঃ যে সকল আগ্নেয় শিলার কেলাস দানাগুলি পকেট লেন্সের সাহায্যে বা খালি চোখে দেখা যায়, তাদের ফেনোরোক্রিস্টালাইন বলা হয়

প্রঃ ফেনেরাক্রিস্টালাইন শিলার একটি উদাহরণ দাও

উঃ ডায়োরাইন ফেনেরাক্রিস্টালাইন শিলার একটি উদাহরণ

প্রঃ মাইক্রোক্রিস্টালাইন কাকে বলে?

উঃ যে সকল আগ্নেয় শিলায় কেলাসদানাগুলি অনুবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে ছাড়া দেখা যায় না, তাদের মাইক্রোক্রিস্টালাইন বলে

প্রঃ মাইক্রোক্রিস্টালাই শিলার একটি উদাহরণ দাও

উঃ পরফাইরি মাইক্রোক্রিস্টালাইন শিলার একটি উদাহরণ

প্রঃ ম্যাগমা কাকে বলে?

উঃ পৃথিবীর অভ্যন্তরে উত্তপ্ত তরল গলিত পদার্থকে ম্যাগমা বলে

প্রঃ ম্যাগমার উষ্ণতা কীরূপ?

উঃ ভূ-গর্ভের বহু নীচে অবস্থান করায় ম্যাগমার উষ্ণতা অধিক হয়।।

প্রঃ ম্যাগমার অপর নাম কী?

উঃ ম্যাগমা ভূ-পৃষ্ঠের বাইরে বেরিয়ে এলে ম্যাগমাকে তখন লাভা বলা হয়

প্রঃ লাভা কাকে বলে?

উঃ ভূ-অভ্যন্তরস্থ ম্যাগমা যখন অগ্ন্যুৎপাতজনিত কারণে ভূ-পৃষ্ঠে এসে পৌঁছায় তখন তাকে লাভা বলে

প্রঃ লাভার উষ্ণতা কেমন?

উঃ লাভার উষ্ণতা ম্যাগমা অপেক্ষা কম হয়

প্র: 'Sedimentary' কথাটি কোথা থেকে এসেছে?

উঃ 'Sedimentary' কথাটি ল্যাটিন শব্দ 'Sedimentum' থেকে এসেছে

প্র: 'Sedimentum' শব্দটির অর্থ কী?

উঃ Sedimentum' শব্দটির অর্থ অধঃপতন

প্রঃ পাললিক শিলার একটি উদাহরণ দাও

উঃ বেলেপাথর পাললিক শিলার উদহারণ

প্রঃ পলিশিলীভবন কাকে বলে?

উঃ আলগা পলি থেকে কঠিন পাললিক শিলায় পরিণত হওয়ার প্রক্রিয়াকেই পলিশিলীভবন বলে

প্রঃ পাললিক শিলার একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ পাললিক শিলাতে তীর্যক সমান্তরাল মিশ্র স্তরায়ণ দেখা যায়

প্রঃ পললের উৎপত্তি অনুযায়ী পাললিক শিলা কয় প্রকার?

উঃ পললের উৎপত্তি অনুযায়ী পাললিক শিলা দুই প্রকার

প্রঃ গঠন অনুযায়ী পাললিক শিলা কয় প্রকার?

উঃ গঠন অনুযায়ী পাললিক শিলা তিন প্রকার

প্রঃত্বচকাকে বলে?

উঃ পাললিক শিলার কোনো স্তরের বেধ যখন 1 cm অপেক্ষা কম হয়,তখন তাকে '' বলে

প্রঃ মার্বেল পাথর কীভাবে সৃষ্টি হয়?

উঃ চুনাপাথরের রূপান্তরের ফলে মার্বেল পাথরের সৃষ্টি হয়

প্রঃ মার্বেল পাথরের প্রকৃতি কীরূপ?

উঃ মার্বেল পাথর দানাদার অপপ্রায়িত এক প্রকার রূপান্তরিত শিলা

প্রঃ জীবাশ্বের একটি গুরুত্ব লেখ

উঃ জীবাশ্বের সাহায্যে শিলায় প্রকৃতি নির্ণয় করা যায়

প্রঃ উৎপত্তি অনুসারে জীবাশ্বকে কয় ভাগে ভাগ করা যায়?

উঃ উৎপত্তি অনুসারে জীবাশ্বকে দুই ভাগে ভাগ করা যায়

প্রঃ স্তারায়ণের একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ স্তরায়ণের তল বরাবর জীবাশ্ম সৃষ্টি হতে দেখা যায়

প্রঃ প্রকৃতি অনুযায়ী জীবাশ্ম কয় প্রকার ?

উঃ প্রকৃতি অনুযায়ী জীবাশ্ম তিন প্রকার

প্রঃ পেগমাটাইট কী?

উঃ এক বিশেষ ধরনের স্থূল দানাবিশিষ্ট উদভেদী আগ্নেয় শিলাকে পেগমাটাইট বলে

প্রঃ পেগমাটাইট শিলার একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ পেগমাটাইট শিলার কণাগুলি 10 mm তার বেশি হয়

প্রঃ বেন্টোনাইট কী ?

উঃ মন্টমোরিলোনাইট দিয়ে গঠিত এক ধরনের অবিশুদ্ধ কাদাকে বেন্টোনাইট বলে

প্রঃ চুনাপাথর কীভাবে সৃষ্টি হয়?

উঃ ক্যালসিয়াম কার্বনেট রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় অধঃক্ষিপ্ত হয়ে চুনাপাথর সৃষ্টি হয়

প্রঃ রূপান্তরিত শিলার একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ পাললিক শিলার রূপান্তরিত হলে আগের চেয়ে শক্ত হয়

প্রঃ শিস্ট কী?

উঃ শিস্ট হল একপ্রকার আঞ্চলিক রূপান্তরের ফলে গঠিত শিলা

প্রঃ নাইস কী?

উঃ নাইস হল একপ্রকার দানাদার রূপান্তরিত শিলা

প্রঃ নাইসের রঙ কেমন?

উঃ নাইসের বর্ণ ধূসর, সাদা বা কালো

প্রঃ শ্রেটের রঙ কেমন?

উঃ শ্রেট কালো, সুবজ লালচে রঙের হয়ে থাকে

প্রঃ শ্লেট পাথর কী কাজে ব্যবহৃত হয় ?

উঃ গৃহনির্মাণ অন্যান্য নানা রকমের কাজে শ্লেট পাথর ব্যবহৃত হয়

প্রঃ খনিজের একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ খনিজের একটি বৈশিষ্ট্য হল, খনিজের আভ্যন্তরীণ গঠন সুনির্দিষ্ট

প্রঃ একটি সিলিকেট খনিজের নাম লেখ

উঃ একটি সিলিকেট খনিজের নাম হল কোয়ার্টজ

প্রঃ ভাঁজের একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ সংনমন বলের প্রভাবে অনুভূমিক শিলাস্তর কুঞ্চিত হয় এবং ভাঁজ সৃষ্টি হয়

প্রঃ ভাঁজ সৃষ্টির একটি কারণ লেখ

উঃ ভাঁজ সৃষ্টির একটি কারণ হল পরিচলন স্রোত

প্রঃ ভাঁজের অক্ষতলের অবস্থান অনুযায়ী ভাঁজকে কটি ভাগে ভাগ করা যায় ?

উঃ ভাঁজের অক্ষতলের অবস্থান অনুযায়ী ভাঁজকে চারটি ভাগে ভাগ করা যায়

প্রঃ উৎপত্তি অনুসারে ভাঁজকে কয় ভাগে ভাগ করা যায়?

উঃ উৎপত্তি অনুসারে ভাঁজকে তিন ভাগে ভাগ করা যায়

প্রঃ ভাজের ফলে গঠিত একটি ভূমিরূপের নাম লেখ

উঃ ভাঁজের ফলে গঠিত একটি ভূমিরূপ হল ভঙ্গিল বা ভাঁজ পর্বত

প্রঃ ভঙ্গিল পর্বতের একটি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ ভঙ্গিল পর্বতের একটি বৈশিষ্ট্য হল, ভঙ্গিল পর্বতে জীবাশ্ম দেখা যায়

প্রঃ ভারতের প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত কী?

উঃ ভারতের প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত হল আরাবল্লী পর্বত

প্রঃ U.S.A.-এর প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত কী?

উঃ U.S.A.-এর প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত হল অ্যাপালেচিয়ান

প্রঃ ইউরোপের প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত কী?

উঃ ইউরোপের প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত হল ক্যালিডোনিয়ান

প্রঃ অস্ট্রেলিয়ার প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত কী?

উঃ অস্ট্রেলিয়ার প্রাচীন ভঙ্গিল পর্বত হল গ্রেট ডিভাইডিং রেঞ্জ

প্রঃ ভাঁজের একটি অংশের নাম লেখ

উঃ ভাঁজের একটি অংশের নাম হল ঊর্ধ্বভঙ্গ

প্রঃ অধোভঙ্গ কাকে বলে?

উঃ পাশাপাশি গড়ে ওঠা দুটি ঊর্ধ্বভঙ্গের মধ্যবর্তী নীচু অংশকে অধোভঙ্গ বলে

প্রঃ অধোভঙ্গের ১টি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ অধোভঙ্গের বাহুদ্বয়ের নতি পরস্পরের দিকে হয়

প্রঃ ঊর্ধ্বভঙ্গ ধারার ১টি উদাহরণ দাও

উঃ ফ্রান্সে সুইজারল্যান্ডের জুরা পর্বতে ঊর্ধ্বভঙ্গ ধারা দেখা যায়

প্রঃ প্রতিসম ভাঁজের ১টি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ প্রতিসম ভাঁজের এক পার্শ্ব অন্য পার্শ্বের প্রতিবিম্বের ন্যায়

প্রঃ প্রতিসম ভাঁজের ঢাল কত ডিগ্রী হয়?

উঃ প্রতিসম ভাঁজের ঢাল 60°-90° হয়

প্রঃ সমনতি ভাঁজের ১টি বৈশিষ্ট্য লেখ

উঃ সমনতি ভাঁজের ১টি বৈশিষ্ট্য হল সমনতি ভাঁজ মূলত উলম্ব হয়

প্রঃ শায়িত ভাঁজের ১টি বৈশিষ্ট্য দাও

উঃ দুটি বাহুর স্তর কোনো সময় মিশে গিয়ে ন্যাপ সৃষ্টি হয় এটি শায়িত ভাঁজের বৈশিষ্ট্য

প্রঃ শায়িত ভাঁজের ১টি উদাহরণ দাও

উঃ হিমালয়ের দার্জিলিং একটি বৃহদাকার শায়িত ভাঁজ

0 Comments: